হায়রে কুরিয়ার সার্ভিস

অফিসে কলিগদের মাঝে কথা হচ্ছিল

ডিএইচএল আর সুন্দরবন নিয়ে

দেশি আর বিদেশি পারসেল সার্ভিস নিয়ে

তখনই কন্টিনেন্টাল কুরিয়ার সার্ভিসের

কথা মনে পড়লো

নাকি সেটা অন্য কোনো সার্ভিস ছিল?!

যে সার্ভিসের মাধ্যমে ১২০ টাকার

চকোলেট পাঠিয়ে ছিলাম

কুমিল্লা শহরে ২০০৮ সালে

জুলির কাছে, অ্যাকাউন্ট্যান্টের মেয়ে।

একটেল বা রবি ইউজ করতো

আর আমিও ইউজ করতাম।

দুজনে সারারাত ফোনে কথা বলেছি

বেশ কয়েক রাত।

কত রোমান্টিকতা

আর ভবিষ্যৎ পরিকল্পনা

বিয়ে করবো বলে।

দুজনে কী পছন্দ করতাম,

আর কী অপছন্দ করতাম।

দেখাও করেছিলাম তার সাথে

ঢাকা থেকে গিয়ে

ভ্যালেনটাইনের দিনে।

বড় অভিমানী ছিল সে,

নাকি হিপোক্রিট?

ছোটখাটো কথা কাটাকাটিতে

ফুলের তোড়াটা হাতে নিল না সে।

পরে অবশ্য আফসোস করেছিল।

এরপর কুরিয়ারের মাধ্যমে

চকোলেট পাঠাতে বললো।

পাঠালামও।

সে নাকি পায় নি!

গেল আমাদের সম্পর্ক ভেস্তে।

তাই এখনো আফসোস করি।

দোষটা কি কুরিয়ারের ছিল?

নাকি সে ছিল হিপোক্রিট?

নাকি আমিই মানুষ চিনতে ভুল করেছিলাম?!

 

Leave a Comment

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.