দেশটা যেন কিনে নিয়েছে

চারপাশে অনেক মানুষ দেখি

যাদের ভাবসাবে মনে হয়

তারা দেশটাকে কিনে নিয়েছে।

আর যাদেরকে সরাসরি দেখতে পাই না

অর্থাৎ টিভির পর্দায়

অথবা খবরের কাগজের ছবিতে দেখি,

এমন অনেকের ভাবসাবে মনে হয়

তারা যেন দেশটাকে কিনে নিয়েছে।

এর মধ্যে মুখ্য ব্যক্তি হলেন দেশের মুখ্যমন্ত্রী

থুক্কু, প্রধানমন্ত্রী, (বাংলাদেশ তো এখনো কাগজে-কলমে ভারতের প্রদেশ হয় নি)

তাঁর পিতা নাকি একাই দেশটা স্বাধীন করেছিলেন!

তাই দেশটাকে নিয়ে ছিনিমিনি খেলার অধিকার যেন তাঁর রয়েছে।

করছেন ভোট-চুরি, মানুষ-চুরি (জনশুমারি)

আর টাকা – অর্থের কথা না হয় নাই বললাম।

এছাড়া দেশটাকে কিনে নেওয়া পাবলিকের তালিকায় রয়েছে

অনেক ধর্মান্ধ, তারা অন্য ধর্মের লোককে

মোটেই সহ্য করতে পারে না।

দেশের ৯০% মুসলিমের অনেকেই মনে করে,

দেশে তারা ছাড়া অন্যদের সুস্থ-সাবলীলভাবে বাঁচার অধিকার নেই।

আবার, হিন্দু অনেক ধর্মান্ধ রয়েছে

যারা ‘সংখ্যালঘু নির্যাতন ‘ ধোঁয়া তুলে

দেশটাকে ভারতের হাতে তুলে দিতে চায়।

আসলে দেশটা কেউ কিনে নেয় নি

বা কেনার অধিকার কারো নেই

যারা এমনটা মনে করে,

তারা হলো জারজ সাইকো।

Leave a Comment

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.