তাপসী পান্নু সম্পর্কে এই তথ্যগুলো জানতেন কি?

তাপসী পান্নু নয়াদিল্লীতে জন্মগ্রহণ করেন ১৯৮৭ সালের ১লা আগস্ট অর্থাৎ তাঁর বর্তমান বয়স প্রায় ৩১ বছর এবং তিনি সিংহ রাশির জাতিকা। তিনি এখন পর্যন্ত তেলেগু, তামিল, মালয়ালম এবং হিন্দী ছবিতে অভিনয় করেছেন। তাপসী সফটওয়্যার ইঞ্জিনিয়ার হিসেবে কাজ করেছেন এবং অভিনয় জগতে প্রবেশের পূর্বে কিছুদিন মডেলিং-এর কাজ করেছেন। মডেলিং ক্যারিয়ারে বেশ কয়েকটি বিজ্ঞাপনে কাজ করেছেন তিনি।

এর মধ্যে রয়েছে রিলায়েন্স ট্রেন্ডস, রেড এফএম ৯৩.৫, ইউনিস্টাইল ইমেজ, কোকাকোলা, মোটোরোলা, প্যান্টালুন, পিভিআর সিনেমাস, স্ট্যান্ডার্ড চার্টার্ড ব্যাংক, ডাবর, এয়ারটেল, টাটা ডোকোমো, ওয়ার্ল্ড গোল্ড কাউন্সিল, হ্যাভেলস এবং বর্ধমান। তাঁকে ‘জাস্ট ফর উইমেন’ এবং ‘মা স্টারস’ ম্যাগাজিনদ্বয়ে ফিচার করা হয়েছে। কয়েক বছর মডেলিং করার পর তিনি এতে আগ্রহ হারান; তিনি বুঝতে পারলেন, তিনি তাঁর মেধার সত্যিকার স্বীকৃতি মডেলিং-এর মাধ্যমে পাবেন না, বরং তাঁকে অভিনয় করতে হবে। ফলে এক পর্যায়ে তিনি মডেলিং ছেড়ে দিয়ে অভিনয় শুরু করেন।




তাপসী তাঁর সিনেমাজগতের অভিষেক ঘটান ২০১০ সালে মুক্তিপ্রাপ্ত তেলেগু চলচ্চিত্র ‘ঝুম্মান্দি নাদাম’-এর মাধ্যমে। তেলেগু হলো ভারতের তেলেঙ্গানা ও অন্ধ্রপ্রদেশের লোকজনের আঞ্চলিক ভাষা, যেখানকার রাজধানী হলো হায়দ্রাবাদ। জেনে রাখতে পারেন, বলিউড অভিনেতা সালমানের খানের পরিবারের বাড়ি হায়দ্রাবাদে যেখানে সালমানের পিতা সেলিম খান এবং তাঁর মাতা বসবাস করেন।

‘ঝুম্মানদি নাদাম’ ছবিতে তিনি আমেরিকার এক কোটিপতির কন্যার চরিত্রে অভিনয় করেন, যিনি ভারতে আসেন ট্র্যাডিশনাল তেলেগু মিউজিক-এর উপর গবেষণার উদ্দেশ্যে। এই ছবিটি মুক্তি পাওয়ার আগেই তিনি আরো তিনটি ছবিতে অভিনয়ের জন্য অফার পান। তামিল চলচ্চিত্র জগতে তাঁর অভিষেক ঘটে ‘আদুকালাম’ ছবির মাধ্যমে, ছবিটি মুক্তি পায় ২০১১ সালে।

ছবিটিতে তিনি একটি অ্যাংলো-ইন্ডিয়ান মেয়ের চরিত্রে অভিনয় করেন যে একটি গ্রাম্য যুবকের প্রেমে পড়ে। যুবকের চরিত্রে অভিনয় করেন তামিল চলচ্চিত্র ইন্ডাস্ট্রির প্রবাদপ্রতিম অভিনেতা রজনীকান্ত’র পুত্র ধানুশ। ছবির কাহিনী তামিলনাড়ুর নগর ‘মাদুরাই’-কে কেন্দ্র করে, যেখানে বেশিরভাগ দৃশ্যে পুরুষালী মারপিট দেখানো হয়েছে। ছবিটি মোটামুটি ব্যবসা করে, তবে ভারতের ৫৮-তম জাতীয় চলচ্চিত্র পুরষ্কার অনুষ্ঠানে ছয়টি জাতীয় পুরষ্কার লাভ করে।

হিন্দী চলচ্চিত্রে তাপসীর অভিষেক ঘটে ২০১৫ সালে মুক্তি পাওয়া ‘বেবি’ ছবির মাধ্যমে। এতে তিনি অক্ষয় কুমারের বিপরীতে অভিনয় করেন। আরো বেশ কয়েকটি হিন্দী চলচ্চিত্রে অভিনয় করলেও ‘জোডওয়া ২’ ছবিতে তাঁর অভিনয় খুবই প্রশংসিত হয়। ছবিটি ব্যাপক ব্যবসাসফলও হয়। ছবিটি পরিচালনা করেন ডেভিড ধাওয়ান, এতে ডেভিডের পুত্র বরুণ ধাওয়ান ডাবল পার্টে অভিনয়ও করেন।

এবার আসি তাপসীর ব্যক্তিগত জীবন নিয়ে। ২০১৫ সালে তাঁকে একবার তাঁর প্রেমজীবন সম্পর্কে জিজ্ঞেস করা হয়েছিল। তিনি উত্তর দিয়েছেন, ‘হ্যাঁ, আমিও প্রেম করেছি, তবে সেটা কোনো অভিনেতার সাথে নয়, দক্ষিণ ভারতের এক সাধারণ পুরুষের সাথে। আমি আপনাদেরকে স্ট্যাম্পে লিখে দিতে পারি, আমি কখনোই কোনো অভিনেতার সাথে সম্পর্কে জড়াব না।’ ২০১৩ সালের শেষ হতে আজ পর্যন্ত ‘ম্যাথিয়াস বি’ নামে এক ড্যানিশ ব্যাটমিন্টন খেলোয়াড়ের সাথে তিনি রিলেশনশিপে আছেন।

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.